জয় বাংলা প্রকল্প কি | তপশিলি ভাতা 1000

Sharing Is Caring:
WhatsApp Group (Join Now) Join Now
Telegram Group (Join Now) Join Now
Facebook Page (Join Now) Join Now
Rate Our Post

জয় বাংলা প্রকল্প কি (Jai Bangla Scheme) হল ভারতের পশ্চিমবঙ্গ সরকার কর্তৃক প্রবর্তিত একটি সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি। রাজ্যের বয়স্ক, নিঃস্ব এবং শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের আর্থিক সহায়তা প্রদানের জন্য এই স্কিমটিকে 1লা জানুয়ারী 2020-এ চালু করা হয়েছিল। এবং এখন পর্যন্ত এই প্রকল্পটি প্রায় 1 কোটি সুবিধাভোগীকে সুবিধা প্রদান করেছে।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দরিদ্র জনগণের জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এই প্রকল্পটি চালু করেছেন, এই প্রকল্পটি পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন প্রকল্প নামে পরিচিত।

তো আজকে আমি জয় বাংলা প্রকল্প কি এবং এই প্রকল্পের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য এবং সুবিধাগুলি নিয়ে আলোচনা করব।

যদি আপনারা সম্পূর্ণ এই গাইডলাইনটি মনোযোগ সহকারে পড়েন, তাহলে আমি আশা করছি যে এই আর্টিকেলটিতে আমার বলা স্টেপগুলি ফলো করার মাধ্যমে, আপনারা পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা প্রকল্প কি এই প্রকল্পের জন্য সঠিকভাবে আবেদন করতে পারেবেন।

আরো পড়ুনঃ

 

Contents hide

সংক্ষেপে জয় বাংলা প্রকল্প

প্রকল্পের নাম জয় বাংলা পেনশন প্রকল্প
বিভাগ বীমা ও যোজনা কল্যাণ মন্ত্রক
উপকারভোগী পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মানুষ
অনলাইন আবেদন শুরু করার তারিখ Ongoing……
অনলাইন আবেদনের শেষ তারিখ End date not fix
উদ্দেশ্য সামাজিক নিরাপত্তা দেওয়া
ত্রাণ তহবিল 1000 টাকা প্রতি মাসে
প্রকল্পের ধরণ রাজ্য সরকারের পরিকল্পনা
অফিসিয়াল ওয়েবসাইট jaibangla.wb.gov.in

 

জয় বাংলা প্রকল্প কি

জয় বাংলা প্রকল্প হল ভারতের পশ্চিমবঙ্গ সরকার কর্তৃক একটি সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি, যা রাজ্যের বয়স্ক, নিঃস্ব এবং শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের আর্থিক সহায়তার জন্য চালু করা হয়েছিল।

এই প্রকল্পের অধীনে যোগ্য সুবিধাভোগীরা মাসিক 1000 টাকা পেনশন পাবেন। যা সরাসরি তাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করা হবে।

এই প্রকল্পের সুবিধাভোগীদের মধ্যে বয়স্ক নাগরিক, বিধবা এবং প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা অন্তর্ভুক্ত।

এই প্রকল্পে যোগ্য হওয়ার জন্য, আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে এবং সরকার থেকে অন্য কোনও পেনশন প্রকল্প বা আর্থিক সহায়তার প্রাপক হতে হবে না।

ডোর-টু-ডোর জরিপের মাধ্যমে সুবিধাভোগীদের চিহ্নিত করা হবে এবং আবেদন প্রক্রিয়া সহজ এবং অনলাইন বা অফলাইনে করা করতে পারবেন।

জয় বাংলা পেনশন প্রকল্প সমাজের দুর্বল অংশগুলিকে আর্থিক নিরাপত্তা এবং সহায়তা প্রদান করবে এবং তাদের জীবনযাত্রার মান উন্নত করবে।

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পটি পর্যায়ক্রমে দুটি ধাপে চালু করা হয়েছে। এই দুটি ধাপই পৃথকভাবে আমাদের সমাজের সামাজিকভাবে পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর উপকারে আসবে, যারা হলেন তফসিলি জাতি এবং তফসিলি উপজাতি

তফসিলি বর্ণ বিভাগের জন্য যে প্রকল্পটি চালু হয়েছিল তা তফসিল বন্ধু পেনশন প্রকল্প নামে পরিচিত। এবং তফসিলি উপজাতি বিভাগের জন্য যে প্রকল্পটি চালু করা হয়েছে তা জয় জোহর প্রকল্প হিসাবে পরিচিত।

এই দুটি প্রকল্পই সমাজের বিভিন্ন বর্ণ ও শ্রেণীর জন্য বাস্তবায়িত করা হয়েছে।

 

জয় বাংলা প্রকল্পের সুবিধা

পশ্চিমবঙ্গ বাংলা পেনশন প্রকল্পের অনেকগুলি সুবিধা রয়েছে যা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের অর্থমন্ত্রী জনাব অমিত মিত্র ঘোষণা করেছেন।

প্রথমত, দুটি প্রকল্প রয়েছে যা একটি পিতামাতা স্কিমের অধীনে চালু করা হবে যা পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা প্রকল্প নাম পরিচিত।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বাসিন্দাকে দুটি পৃথক স্কিম সরবরাহ করা হবে যাতে তারা পৃথকভাবে এই প্রকল্পের সুবিধা গ্রহণ করতে পারে। প্রতিটি স্কিমের অধীনে বিভিন্ন ধরণের প্রণোদনা পাওয়া যায়।

  • আর্থিক সহায়তা :

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বাসিন্দাদের যে প্রণোদনা প্রদান করা হবে তার তালিকা নীচে দেওয়া হল:

  1. তাপসিলি বন্ধু পেনশন প্রকল্পে সকল সুবিধাভোগীকে 600 টাকা প্রদান করা হবে।
  2. জয় জোহর স্কিমে, সকল সুবিধাভোগীকে 1000 টাকা প্রদান করা হবে।
  • বৃদ্ধ ভাতা:

জয় বাংলা পেনশন স্কিম 60 বছর বা তার বেশি বয়সী প্রবীণ নাগরিকদের পেনশন প্রদান করে। পেনশনের পরিমাণ প্রতি মাসে 1000 টাকা।

  • বিধবা ভাতা:

এই স্কিমটি 18 থেকে 59 বছরের মধ্যে বয়সী বিধবাদের জন্যও ভাতা প্রদান করে। পেনশনের পরিমাণ প্রতি মাসে 1000 টাকা।

  • অক্ষমতা পেনশন:

এই স্কিমটি 18 থেকে 59 বছরের মধ্যে বয়সী প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের পেনশন প্রদান করে থাকে। পেনশনের পরিমাণ প্রতি মাসে 1000 টাকা।

  • স্বাস্থ্য সুবিধা:

প্রকল্পের সুবিধাভোগীরাও স্বাস্থ্য সুবিধার জন্য যোগ্য। তারা সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষা, ওষুধ এবং চিকিৎসা নিতে পারে।

  • জীবনযাত্রার মান উন্নত:

জয় বাংলা পেনশন স্কিম সুবিধাভোগীদের আর্থিক সহায়তা, স্বাস্থ্য সুবিধা এবং সামাজিক নিরাপত্তা প্রদান করে তাদের জীবনযাত্রার মান উন্নত করতে সাহায্য করে।

Read Also:  Karmai Dharma Scheme An Opportunity for Youth Employment

সংক্ষেপে, জয় বাংলা পেনশন স্কিম পশ্চিমবঙ্গের সমাজের অর্থনৈতিকভাবে সুবিধাবঞ্চিত পরিবার গুলিকে আর্থিক সহায়তা এবং স্বাস্থ্য সুবিধা প্রদান করে।এই প্রকল্পটি সুবিধাভোগীদের জীবনযাত্রার মান উন্নত করতে এবং তাদের সামাজিক নিরাপত্তা প্রদান করতে সাহায্য করতে পারে।

আরো পড়ুনঃ

 

তপশিলি বার্ধক্য ভাতা প্রকল্প

Jai Bangla Pension Scheme is a social security scheme launched by the Government of West Bengal in India. The scheme aims to provide financial assistance to the economically disadvantaged sections of the society in the state.

Here are some of the benefits of the Jai Bangla Pension Scheme:

The scheme provides monthly financial assistance to eligible beneficiaries, which can help them meet their basic needs and improve their standard of living.

The Jai Bangla Pension Scheme provides a pension to senior citizens aged 60 years and above. The pension amount is Rs. 1000 per month.

The scheme also provides a pension to widows who are aged between 18 and 59 years. The pension amount is Rs. 1000 per month.

The scheme provides a pension to persons with disabilities who are aged between 18 and 59 years. The pension amount is Rs. 1000 per month.

The beneficiaries of the scheme are also eligible for health benefits. They can avail free health check-ups, medicines, and treatment in government hospitals.

  • Improved Standard of Living:

The Jai Bangla Pension Scheme can help improve the standard of living of the beneficiaries by providing them with financial support, health benefits, and social security.

  • Easy Application Process:

The application process for the Jai Bangla Pension Scheme is simple and easy. Eligible beneficiaries can apply for the scheme online or offline.

In summary, the Jai Bangla Pension Scheme provides financial assistance and health benefits to economically disadvantaged sections of the society in West Bengal.

The scheme can help improve the standard of living of the beneficiaries and provide them with social security.

 

জয় বাংলা প্রকল্পে যোগ্যতা

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পে যোগ্য হওয়ার জন্য আপনাকে নীচে উল্লিখিত ক্রাইটেরিয়া গুলি ফলো করতে হবে –

  • আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
  • আবেদনকারীকে অবশ্যই বিপিএল বিভাগের হতে হবে।
  • আবেদনকারীকে অবশ্যই তফসিলি জাতি বা তফসিলি উপজাতি সম্প্রদায়ের অন্তর্গত হতে হবে।
  • আবেদনকারীর বয়স 60 বছরের বেশি হতে হবে না
  • আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের অন্যান্য পেনশন প্রকল্পে তালিকাভুক্ত হতে হবে না।

 

জয় বাংলা প্রকল্পের বৈশিষ্ট্য

জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পের উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য গুলি হলো –

  • সুবিধাভোগীরা সরাসরি তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সুবিধা পাবেন।
  • সরকার শিগগিরই এই প্রকল্পের জন্য পৃথক পোর্টাল চালু করতে যাচ্ছে।
  • প্রায়- রাজ্যের 1.5 কোটি মানুষ এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন।
  • প্রবীণ, বিধবা, PwD, SC /ST -এর যে কোনও প্রার্থী আবেদন করতে পারবেন।
  • এখনো সরকারের তরফ থেকে বাজেট চূড়ান্ত হয়নি।

 

কি কি ডকুমেন্টেস প্রয়োজন হবে:

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পের জন্য আবেদন করার সময় নিম্নলিখিত নথিগুলির প্রয়োজন: –

  1. পাসপোর্ট ফটোগ্রাফ
  2. কাস্ট সার্টিফিকেট
  3. উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ থেকে ডিজিটাল সার্টিফিকেট
  4. ডিজিটাল রেশন কার্ডের একটি কপি
  5. যদি থাকে তবে আধার কার্ডের একটি কপি
  6. ভোটার আইডির একটি কপি
  7. রেসিডেন্টাল সার্টিফিকেট (Self Declaration)
  8. ইনকাম সার্টিফিকেট (Self Declaration)
  9. ব্যাংক পাস বইয়ের কপি
Read Also:  অটল পেনশন যোজনার তালিকা, চার্ট, ফর্ম, ক্যালকুলেটর এবং ইউটিলিটি 2023

আরো পড়ুনঃ

 

Documents Required:

Following documents are required while applying for West Bengal Joy Bangla Pension Scheme:-

  1. Passport Photograph
  2. Cast Certificate
  3. Digital Certificate from Competent Authority
  4. A copy of digital ration card
  5. A copy of Aadhaar card, if you have
  6. A copy of Voter ID
  7. Residential Certificate (Self Declaration)
  8. Income Certificate (Self Declaration)
  9. Copy of Bank Pass Book

 

যদি মৃত্যু হয়ে যাই (In Case Of Death):

যদি পেনশনের সময়ের সাথে সাথে পশ্চিমবঙ্গের পেনশন প্রকল্পের প্রার্থী মারা যায় তবে নিম্নলিখিত কাজগুলি কর্তৃপক্ষ কর্তৃক গৃহীত হবে –

  • পেনশনের আবেদনকারীর মৃত্যুর পরে এবং এই জাতীয় তথ্যের যথাযথ সত্যতা নিশ্চিত করার পরে, বিভাগ পেনশন বন্ধের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।
  • পেনশন গ্রহণকারীর মৃত্যুর ক্ষেত্রে, প্রদত্ত টাকার পরিমাণটি আবেদন ফর্মে উল্লিখিত মনোনীত ব্যক্তিকে (Nominee) দিয়ে দেওয়া হবে।

 

জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পে আবেদন

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা প্রকল্পের জন্য আবেদনের জন্য আপনাকে নীচে দেওয়া পদ্ধতিটি অনুসরণ করতে হবে –

  • নিচের দেওয়া অফিসিয়াল ওয়েবসাইট টি খুলুন।
  • হোমপেজে আসার পরে, (West Bengal Bangla pension scheme registration) এটিতে ক্লিক করুন।
  • অ্যাপ্লিকেশন ফর্মটি আপনার স্ক্রিনে প্রদর্শিত হবে।
  • এই আবেদন ফর্মটি আপনি নিকটস্থ সরকারী দফতর থেকেও পেতে পারেন।

Jai Bangla Pension Scheme

  • এইবার কম্পিউটারে সরাসরি আবেদন ফর্মটি ডাউনলোড করতে পারবেন।
  • আবেদন ফরমটি কিভাবে ফিলাপ করবেন।
  • আবেদনের ফর্মটির একটি কপি নিন এবং এতে বিশদে, যেমন সুবিধাভোগীর নাম, লিঙ্গ, DOB, বয়স, পিতার নাম, মাতার নাম, কাস্ট ইত্যাদি পূরণ করুন।
  • তারপরে আপনার ডকুমেন্টস গুলো এটাচট করুন।
  • এরপর এই ফর্মটি নিম্নলিখিত অফিসগুলিতে জমা দিতে হবে
  • যদি আবেদনকারী গ্রামীণ (Rural ) অঞ্চলে বসবাস করে তাহলে আপনাকে BDO অফিসে জমা দিতে হবে।
  • যদি আবেদনকারী কোলকাতা পৌর কর্পোরেশনের এলাকার বাইরের পৌর / নোটী অঞ্চলে বসবাস করেন তাহলে SDO অফিসে জমা দিতে হবে।
  • আর যদি আবেদনকারী কলকাতা পৌর কর্পোরেশন এলাকায় বসবাসকারী হয়, তাহলে কলকাতা পৌর কর্পোরেশনের কমিশনার এর কাছে জমা দিতে হবে।

 

Jai Bangla Scheme PDF Download:

Jai Bangla Pension Scheme এর অ্যাপ্লিকেশন পিডিএফ ফর্ম ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে নিচে একটি লিংক দেওয়া হলো। সেখান থেকে আপনি অ্যাপ্লিকেশন ফর্মটি ডাউনলোড করতে পারেন।

Jai Bangla Pension Scheme Application Form PDF

Download

এবার এটাকে কিভাবে আপনি ফিলাপ করবেন এবং কোথায় জমা করবেন সেটা নিচে দেওয়া হলো। পড়তে থাকুন। ………

Joy Bangla Pension Applying Process:

  • Go to the WB’s official website for Jai Bangla Pension Plan.
  • After arriving at the homepage, select the West Bengal Bangla pension system registration option.
  • Your screen will display the application form. You can also access it on https://jaibangla.wb.gov.in/login.
  • Enter registered mobile number, captcha and OTP and login.
  • This JoyBangla application form is also available at local government offices. Complete the JoyBangla application form.
  • Print the application JoyBangla form and fill in the details such as beneficiary name, gender, DOB, age, father name, mother name, caste, and so on.
  • Following that, attach the listed papers.
  • You must submit your completed Joybangla application form to the following offices based on your location.
  • -In the case of a rural applicant, submit to the Block Development Officer.

The Sub-Divisional Officer if the applicant lives in a municipal/notified area outside the Kolkata Municipal Corporation area.

The Commissioner of Kolkata Municipal Corporation if the applicant lives in an area under the jurisdiction of the Kolkata Municipal Corporation.

 

আবেদনপত্র কোথায় জমা দিতে হবে ?

জয় বাংলা পেনশন পাবার জন্য আবেদনপত্র কোথায় জমা দিতে হবে জেনে নিন –

  • আপনি যদি গ্রামীণ এলাকায় বসবাস করেন তাহলে আপনার কাছের ব্লক ডেভেলপমেন্ট অফিসে আবেদনপত্র জমা করুন।
  • যদি আবেদনকারী পৌর কর্পোরেশনের এলাকার বাইরে পৌর এলাকায় থাকেন তাহলে মহকুমা কর্মকর্তা কমিশনার কাছে জমা দিতে পারেন।
  • আবেদনকারী যদি KMC (কলকাতা মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন) এলাকায় থাকেন তাহলে সেখানে জমা দিতে পারেন।
Read Also:  Yoga Camp Certificate Online Free Just 3 Easy Steps 2023

 

যে পয়েন্টগুলি মনে রাখতে হবে:

  • শুধুমাত্র বড়ো হাতের ইংরেজি লেটারে (Capital latter of English) সঠিক বিবরণ সহ আবেদন ফর্মটি পূরণ করতে হবে।
  • বাধ্যতামূলক (Mandatory Columns) ঘরগুলি অবশ্যয় পূরণ করতে ভুলবেন না।
  • প্রত্যেকটি ডকুমেন্টসে নিজের সই (self-attested) থাকতে হবে।
  • আবেদনপত্রে পাসপোর্ট আকারের ছবি অবশ্যই যুক্ত করতে হবে।

 

জয় বাংলা পেনশনের ফর্ম ফিলাপ কীভাবে করবেন ?

জয় বাংলা পেনশনের ফর্ম ফিলাপ করার জন্য আপনাদেরকে নিচে একটা ভিডিও দিয়ে দিলাম। আপনারা ভিডিওটি খুব ভালোভাবে দেখে এবং সম্পূর্ণ স্টেপগুলি কমপ্লিট করে অফলাইনে ফর্মটি ফিলাপ করতে পারেন।

joy-bangla-pension-scheme-application-form-fill-up-2023

Jai Bangla Pension Form Fill Up Online?

The Jai Bangla Pension Scheme is a social welfare scheme launched by the Government of West Bengal for the benefit of economically weaker sections of the state. The scheme provides financial assistance to eligible beneficiaries in the form of a monthly pension.

To apply for the Jai Bangla Pension Scheme, you can follow the steps below:

  1. Visit the official website of the West Bengal Government’s Social Welfare Department at https://wbpension.gov.in/.
  2. Click on the “Apply Online” option on the homepage.
  3. Select the “Jai Bangla Pension Scheme” from the list of available schemes.
  4. Fill in the required details in the application form, including personal information, bank details, and other relevant information.
  5. Upload the necessary documents, such as Proof of Identity, Residence, and Income.
  6. Submit the application form and wait for the verification process to be completed.

Alternatively, you can also visit the nearest Social Welfare Department office or the Gram Panchayat office to obtain the application form and submit it along with the required documents.

 

জয় বাংলা পেনশন সুবিধাভোগী বাছাই পদ্ধতি:

ফর্মটি জমা দেওয়ার পরে নিম্নলিখিত কর্তৃপক্ষ কর্তৃক গৃহীত হবে –

  • আবেদন ফর্মগুলি বিডিও / এসডিও বা KMC কমিশনার কর্তৃক যথাযথভাবে যাচাই করা হবে।
  • তারা এই প্রকল্পের আওতায় আবেদনকারীদের যোগ্যতা নিশ্চিত করবে।
  • শারীরিকভাবে জমা সমস্ত যোগ্য ফর্ম KMC র বিডিও / এসডিও র কমিশনার দ্বারা রাজ্য পোর্টালে ডিজিটালাইজড এবং আপলোড করা হবে।
  • বিডিও এবং এসডিও রাজ্য পোর্টালের মাধ্যমে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে ডিজিটাইজড ফর্মে যোগ্য ব্যক্তির নাম সুপারিশ করবেন। এরপরে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এটিকে নোডাল বিভাগে ফরোয়ার্ড করবেন।
  • কমিশনার, KMC সরাসরি রাজ্য পোর্টালের মাধ্যমে নোডাল বিভাগে যোগ্য ব্যক্তির নাম সুপারিশ করবেন।
  • এরপর নোডাল বিভাগ পেনশন অনুমোদন করবে।
  • পেমেন্ট সরাসরি WBIFMS পোর্টালের মাধ্যমে আবেদনকারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে দিয়ে দেওয়া হবে।
  • পেনশন অনুমোদিত হবে প্রতি মাসের প্রথম তারিখে।

 

জয় বাংলা পেনশন প্রকল্প – FAQ

জয় বাংলা পেনশন প্রকল্প নিয়ে মানুষের যে সমস্ত প্রশ্ন হয়ে থাকে ??

জয় বাংলা পেনশন স্কিমে সহায়তার পরিমাণ কত?

  • তাপসলি বন্ধু পেনশন স্কিমে 600 টাকা সমস্ত সুবিধাভোগীদের দেওয়া হবে।
  • জয় জোহর স্কিমে, সমস্ত সুবিধাভোগীকে 1000 টাকা দেওয়া হবে।

আবেদন করার কত দিন পর টাকা পাওয়া যায় ?

সবকিছু ঠিক ঠাক থাকলে জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পে আবেদনের সাধারণত ৩ মাস পরে টাকা পাওয়া শুরু হয়। যদি আপনার আবেদনে কোনো প্রকার ভুল থাকে তাহলে অবশ্যয় আপনার নিকটস্থ SDO অফিসে যোগাযোগ করুন।

জয় বাংলা পেনশন চেক কিভাবে করবো ?

জয় বাংলা স্কিমের সুবিধাভোগী তালিকা জানতে আপনাকে একটি আবেদন লিখতে হবে এবং এটি এসডিও/বিডিও বা কলকাতা কমিশনারের দ্বারা যাচাই করাতে হবে । এর পরে, নির্বাচিত কর্মকর্তারা প্রার্থীদের জন্য এগুলি যাচাই করে এবং তাদের যোগ্যতা পরীক্ষা করে।

রূপশ্রী প্রকল্প কত সালে চালু হয়?

শ্রীমতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৮ সালে চালু করেছিলেন।

জয় বাংলা প্রকল্প কবে চালু হয়?

প্রকল্পটি শুরু হয় 2020 সালের 1 এপ্রিল। পশ্চিমবঙ্গ সরকার পশ্চিমবঙ্গের সকল দারিদ্র মানুষকে আর্থিকভাবে সাহায্য করার জন্য একটি প্রকল্পের শুরু করেন যার নাম পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন প্রকল্প।

তপশিলি বন্ধু প্রকল্প কি ?

সিডিউল কাস্ট বা তপশিলি পরিবারদের উদ্দেশ্যে যে পেনশন যোজনাটি তপশিলি সম্প্রদায়ের প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষদেরকে দেওয়া হচ্ছে সেটাই তপশিলি বন্ধু প্রকল্প নাম পরিচিত।


Post Views: 1,048

मैं आपका समर्पित सरकारी योजना सूचना प्रदाता हूं, जो आपको हमारे राष्ट्र को सशक्त बनाने और उत्थान के लिए डिज़ाइन की गई नवीनतम सरकारी योजनाओं और पहलों के बारे में सूचित रखने के लिए प्रतिबद्ध है। सार्वजनिक सेवा के प्रति जुनून और जटिल जानकारी को सरल बनाने की आदत के साथ, मैं यह सुनिश्चित करने के लिए यहां हूं कि आपके पास विभिन्न सरकारी योजनाओं (योजनाओं) पर नवीनतम और प्रासंगिक जानकारी तक पहुंच हो।

Leave a Comment